মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা

বাংলাদেশ একটি কৃষি প্রধান দেশ। কৃষিই এই সাহারবিল ইউনিয়ন এর আর্থ সামাজিক উন্নয়নের মূল অংশ। তাই এই কৃষি ভিত্তিক কার্যক্রম সাধারন মানুষের হাতের নাগালের মধ্যে নেয়ার জন্য ২০০০ সালে সাহারবিল ইউনিয়নে  অফিসটি অবস্থিত। আসুন সেবা নিন ভাল থাকুন।

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

সকাল ০৯:০০-১১:০০ পর্যন্ত কৃষি পরামর্শ কেন্দ্রে অবস্থান করে কৃষকদেরকে সরাসরি কৃষিবিষয়ক পরামর্শ। 
ফসল সম্পর্কিত সকল তথ্য ও পরামর্শসেবা।
ফসলের রোগবালাই ও কীটনাশক প্রয়োগ সম্পর্কিত তথ্য।
সঠিক মাত্রায় সারপ্রয়োগ সম্পর্কিত পরামর্শ।
নতুন নতুন কৃষিপ্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি সম্পর্কিত তথ্য।

আদর্শ বীজতলায় বীজবপন।

কম্পোস্ট সারের গর্ত তৈরী ও জমিতে ব্যবহার সংক্রান্ত পরামর্শ।

সবুজ সারবিষয়ক পরামর্শ।

এলসিসি’র মাধ্যমে ইউরিয়া সারের সঠিক ব্যবহার ও সাশ্রয়।

গুটি ইউরিয়া সারের প্রয়োগের মাধ্যমে ইউরিয়া সারের অপচয়রোধ।
বিভিন্ন সার ও কীটনাশকের নিকটস্থ প্রাপ্তিস্থান।
কৃষি পণ্য ও উপকরণ সম্পর্কিত বাজারদর।
কৃষিবিষয়ক সেবা প্রদান কারী প্রতিষ্ঠান সমূহের ঠিকানা।
বিভিন্ন ফসলের বিস্তারিত উৎপাদন প্রযুক্তি সম্পর্কে তথ্য।
পরিবেশ বান্ধব উৎপাদন কৌশল সম্পর্কিত পরামর্শ।

 

অন্যান্যতথ্যযেমন:

·         গোলাপ চাষ

·         মৎস্য চাষ

·         পোল্ট্রি খামার

·         গবাদী পশু

সকল শ্রেণীর কৃষকদের সম্প্রসারণ সহায়তা প্রদান
    কৃষকদের দক্ষ ও সম্প্রসারণ সেবা দেওয়া
    কৃষি বিষয়ক কর্মসূচী বিকেন্দ্রীকরন
    চাহিদাভিত্তিক কৃষি সম্প্রসারণ কার্যক্রম গ্রহণ
    সকল শ্রেণীর কৃষকদের সাথে কাজ করা
    কৃষি গবেষণা ও সম্প্রসারণ কার্যক্রম জোরদার করন
    সম্প্রসারণ কর্মীদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা
    উপযুক্ত সম্প্রসারণ পদ্ধতির ব্যবহার
    সমন্বিত সম্প্রসারণ সহায়তা প্রদান
    সম্মিলিত সম্প্রসারণ কার্যক্রম গ্রহণ
    পরিবেশ সংরক্ষণে সমন্বিত সহায়তা প্রদান
    কৃষি বাণিজ্যিকী করন
    কৃষি তথ্য ও যোগাযোগ পদ্ধতির ব্যবহার

তথ্য-প্রযুক্তি ও কৃষি

 

বর্তমান বিশ্ব তথ্য-প্রযুক্তির বিশ্ব। জীবন উন্নয়ন ও টেকসই বিশ্ব গড়তে তথ্য প্রযুক্তির সেবা আবশ্যক। বাংলাদেশের অর্থনীতি কৃষি নির্ভর। সে কারণে গ্রামীণ জনগোষ্ঠির জীবনযাত্রা উন্নয়নে তথ্য-প্রযুক্তিভিত্তিক ই-কৃষি এনে দিতে পারে নতুন সম্ভাবনা। কৃষকের চাহিদা মাফিক, সঠিক সময়োপযোগী ও আধুনিক তথ্য, বাজারজাতকরণ, সংরক্ষণ প্রযুক্তি ইন্টারনেট, মোবাইল -এর মাধ্যমে সরবরাহ করলে তা খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং কৃষকের ভাগ্যোন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। 

কৃষি তথ্য প্রযুক্তি কেন? 
পরিবর্তিত জলবায়ু ও বাজার অর্থনীতির প্রভাবে কৃষি এখন বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। আন্তর্জাতিক বাজারনীতি, অর্থনীতি, বিপণন অবকাঠামো, জীব-বৈচিত্রের পরিবর্তন কৃষিকে সত্যিকার অর্থেই হুমকির মুখে পড়েছে। 
কৃষিক্ষেত্রে বিরাজমান সমস্যা হচ্ছে গ্রামীণ পর্যায়ে কোন তথ্য কেন্দ্র নেই। কৃষকবান্ধব তথ্য-প্রযুক্তির ডিজিটাইজেশন অপ্রতুল। কৃষক সংগঠন ও সমবায় ব্যবস্থার অভাব। বাজার অবকাঠামো ও বিপণন ব্যবস্থার সাপ্লাই চেইন ব্যবস্থাপনার অভাব। উৎপাদক ও ভোক্তাবান্ধব কৃষি ব্যবস্থার উন্নয়ন অসম। 

কৃষিঋণ ও কৃষি ভর্তূকির সরকারি তথ্য সরবরাহ সমপ্রচার অপর্যাপ্ত। সময়োপযোগী ও চাহিদাভিত্তিক তথ্যের বিস্তার কম। 

এসব সমস্যার স্থায়ী সমাধান ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে ই-কৃষির ব্যবহার আনতে পারে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য।

তথ্য প্রযুক্তির বাস্ত-বায়নের কৌশল

 

ই-কৃষি: 
জাতীয় কৃষি নীতিতে ই-কৃষি অন্তর্ভূক্তকরণ। ইউনিয়ন পর্যায়ে কৃষি তথ্য কেন্দ্র সমপ্রসারণ। কৃষি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের আইসিটি বিষয়ে উৎসাহী ও প্রশিক্ষিতকরণ। কৃষকবান্ধব ই-কৃষি কনটেন্ট তৈরি ও ব্যবহার। কৃষি ভিত্তিক ওয়েবসাইট, ওয়েব টিভি, ওয়েব বেতার চালু করা। কমিউনিটি বেতার চালুকরণ। পূণার্ঙ্গ কৃষি চ্যানেল প্রতিষ্ঠা ও সমপ্রচার। টেরিস্ট্রিয়াল ও স্যাটেলাইট চ্যানেলে কৃষি বিষয়ক অনুষ্ঠানের সমপ্রচার সময় বৃদ্ধি। 

কমিউনিটি পর্যায়ে কৃষি তথ্য ও যোগাযোগ কেন্দ্র স্থাপন: 
আধুনিক কৃষি তথ্য সেবা প্রদানের জন্য কমিউনিটি পর্যায়ে ওয়ানস্টপ সার্ভিসের আদলে কৃষিভিত্তিক যাবতীয় তথ্য প্রদানের ব্যবস্থা করা। আর এ তথ্য কেন্দ্র থেকে গ্রামীণ জনগোষ্ঠি পেতে পারে কৃষি, মৎস্য, পশুসম্পদ এবং সরকারে নীতি বাস্তবায়ন কৌশলসহ স্বাস্থ্য, বাজারদর, কৃষি বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র। তাছাড়া কৃষি বিষয়ক মুদ্রণ সামগ্রী- বুকলেট, লিফলেট, ও প্রশিক্ষণ সুবিধা এবং ফোন ইন প্রোগ্রামের সুবিধা। 

কমিউনিটি বেতার: 
রেডিও ছোট, সহজে বহনযোগ্য ও দামেও সস্তা। সেদিক দিয়ে এটি বেশ সহজলভ্য। কমিউনিটি উন্নয়ন কনসেপ্টকে ব্যবহার করে কমিউনিটি বেতার এর মাধ্যমে সুবিধা বঞ্চিত এলাকার জনগণের চাহিদামাফিক তথ্য সরবরাহ করা সম্ভব। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল এলাকাভিত্তিক লাগসই ও টেকসই কৃষিপ্রযুক্তি সমপ্রসারণ ও স্থানীয় উন্নয়নের মাত্রিক পরিবর্তন আনয়ন করা সম্ভব। 

কৃষি সেবা লাইন/ ফোন ইন সুবিধা: 
বর্তমানে মুঠোফোনের জোয়ারে ভাসছে এদেশ। সেই মুঠোফোন হতে পারে কৃষির একটি হেল্প লাইন। এতে ইন্টার অ্যাকটিভ ভয়েস রেকর্ড, মেসেজ, বিশেষজ্ঞ পরামর্শ ও বিরূপ আবহাওয়ায় করণীয় বার্তা প্রদান এনে দিতে পারে কৃষিষেত্রে তাৎক্ষণিক গতি ও সাফল্য। 

তথ্য-প্রযুক্তির অফুরন- ভাণ্ডার থেকে ই-কৃষির সফল বাস-বায়ন খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং কৃষি ও কৃষকের ভাগ্যোন্নয়নের মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার পথে এগিয়ে নিবে অনেক দূর।

ছবি নাম মোবাইল
মো:আবু বকর সিদ্দিক ০১৭১৭-৭৯৮২২১
এ.কে.এম নিজাম উদ্দিন ০১৮১২-৭২৩৭৫৫

ছবি নাম মোবাইল
এ.কে.এম নিজাম উদ্দিন ০১৮১২-৭২৩৭৫৫

গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পের নাম (বাধ্যতামূলক)

মেয়াদ

বরাদ্দ

প্রকল্পের বৈশিষ্ট্য (বাধ্যতামূলক)

ডিজাস্টার এন্ড ক্লাইমেন্ট রিস্ক ম্যানেজমেন্ট ইন এগ্রিকালচার

২০১২-১৩

(০১ বৎসর)

১,৮৩,০০০/-

দুর্যোগ জনিত ও আবহাওয়া পরিবর্তনের উপর এলাকার উপযোগী অনুসারে ফসল আবাদ।

চাষী পর্যায়ে আধুনিক জাতের ধান, গম ও পাট বীজ উৎপাদন ও সম্প্রসারণ কর্মসূচী

২০১২-১৩

(০১ বৎসর)

৬৮,২০০/-

কৃষক পর্যায়ে আধুনিক জাতের ধান উৎপাদন এবং সম্প্রসারণ ও আধুনিক কলাকৌশল কৃষকের সাথে প্রযুক্তি সম্পর্কে জানানো।

উপকুলীয় ৭টি জেলায় লবনাক্ত ও পতিত জমিতে কৃষি সম্প্রসারণ কর্মসূচী

২০১২-১৩

(০১ বৎসর)

১,৩০,০০০/-

ডাল জাতীয় ফসলের আবাদ, লবণাক্ত উপযোগী ফল বাগান প্রদর্শনী, লবনাক্ত এলাকার উপযোগী ধান চাষ প্রদর্শনী।

বিস্তারিত জানার জন্য এই লিংক গুলোতে যেতে পারেন..

http://www.amaderkrishi.com/ourServices.php

উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা

সাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদ ( ব্লক অফিস)

সাহারবিল, চকরিয়া, কক্সবাজার।

মোবইল নং:-০১৭১৭-৭৯৮২২১